কম দামে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ | ভালো মোবাইল ঘড়ির দাম

কম দামে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ | ভালো মোবাইল ঘড়ির দাম

সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩

কম দামে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ | ভালো মোবাইল ঘড়ির দাম

সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩

আপনি কি ভালো মোবাইল ঘড়ির দাম, ৩ হাজার টাকার মধ্যে সেরা স্মার্ট ওয়াচ ( Smart Watch Under 3000 taka), ২০২৩ সালে মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ এর সুবিধা কি? নকল মোবাইল ঘড়ি ও ভালো স্মার্ট ওয়াচ চেনার উপায় কি? খুঁজছেন? [ Low Price Smart Watch In Bangladesh ] ২০২৩ সালে কম দামে সেরা স্মাট ওয়াচ এর মুল্য তালিকা সহ বিস্তারিত আলোচনা করা হবে এবং সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ সালের লিস্ট করা হবে, যা সকল ঘড়ির ব্রান্ডগুলো বাংলাদেশে সহজেই পাওয়া যায়। চলুন আজকের মুল টপিক অনুযায়ী শুরু করা যাক।

Table of Contents

বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে সব ধরনের পণ্যই আধুনিক হচ্ছে। সময় দেখার জন্য মানুষ এখন সাধারণত হাত ঘড়ি না দেখে স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহার করে থাকে,অন্য দেশসহ বাংলাদেশে ও ২০২৩ সালে মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ খুবই ট্রেন্ডিং অবস্থানে আছে। প্রযুক্তি ও ফ্যাশনপ্রিয় মানুষদের পছন্দের তালিকায় স্মার্ট ওয়াচ রয়েছে সবার শীর্ষে। করন, বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে স্মার্ট ওয়াচ এর চাহিদা ব্যাপক বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখন খুব কম সংক্ষক মানুষ দৈনন্দিন জীবনে এনালগ হাত ঘড়ি ব্যাবহারের থেকে স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ি এর ব্যাবহার বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশ সহ বিশ্বের সকল দেশে এর চাহিদা অনেক।

২০২৩ সালে বেশি দামের স্মার্ট ওয়াচ গুলো সাধারণত কম বাজেটের স্মার্ট ওয়াচ এর তুলনায় ফিউচার বা ব্যাবহারকারী অভিজ্ঞতা এবং এর সঠিকতা প্রায়ই কাছাকাছি বলা যায়। বেশি দামের স্মার্ট ওয়াচ গুলো সাধারণত একুরেট ফিচারস দিয়ে থাকে, তবে কম দামের তুলনায় ততটা বেশি না। তাই বর্তমানে সবাই কম দামে ভালো স্মার্ট ওয়াচ ব্যাবহার করে থাকে। এদের সুবিধাও অনেক।

আধুনিক প্রযুক্তির বিকাশের সাথে সাথে আমাদের জীবনের প্রতিটি মুহুর্ত নতুন ও সুবিধাজনক প্রযুক্তি যোগ হচ্ছে। এই বিকাশের একটি অংশ হিসেবে এখন স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ সালে ব্যাপক সারা ফেলছে, যা বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন দেশে এর ব্যাপকতা রয়েছে। আজকে আমরা Smart Watch সম্পর্কে কথা বলবো। স্মার্ট ওয়াচ হচ্ছে একটি উপকরণ যা আপনার হাতের সুন্দর্য তৈরি করে। এটি আপনাকে সহজেই সময় দেখার সুবিধা প্রদান করে, কল করার সুবিধা দেয়, মেসেজের নোটিফিকেশন পাঠায়, হার্ট রেট মনিটর করে, ওয়াটারপ্রুফ, শরীরের গতি মাপে এবং আরও অনেক কিছু করার সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। যা এনালগ হাত ঘড়িতে, স্মার্ট ওয়াচ এর সুবিধা পাবেন না।

হাত ঘড়িতে শুধু সময় দেখতে পারেন, কিন্তু অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি স্মার্ট ওয়াচ আপনার প্রতিটা মুহুর্তকে অনেক সুবিধা প্রদান করবে যা এনালগ হাত ঘড়িতে এসব সুবিধা পাবেন না। Smart Watch বা মোবাইল ঘড়ি ২০২৩ সালে নতুন একটি ট্রন্ডিং ডিভাইস যার মাধ্যমে ব্লাড প্রেশার, ওয়াটারপ্রুফ, ইসিজি, হার্ট রেট মনিটরিং, কলিং ফিচার, খেলাধুলাসহ বিভিন্ন কার্যক্রম এর সঠিক তথ্য দিতে পারে। তাই মোবাইল ঘড়ি বর্তমানে সবার পছন্দের একটি ডিভাইস বলা যায়।

স্মার্ট ওয়াচ বিভিন্ন কোম্পানি সমূহ তৈরি করে থাকে এবং বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট, ঘড়ির দোকান বা বিভিন্ন মাধ্যমে আপনাদের কাছে প্রদান করে থাকে। আপনি এখন কম দামে স্মার্ট ওয়াচ পেতে পারেন। আপনি কম দামে বাজেট স্মার্ট ওয়াচ খুঁজছেন, তাহলে ২০২৩ সালে আপনার জন্য অনেক ব্রান্ডের স্মার্ট ওয়াচ রয়েছে। সবার জন্য উপযুক্ত ও কম মূল্যে স্মার্ট ওয়াচ পেতে আপনি বিভিন্ন মডেল এবং ব্র্যান্ডের স্মার্ট ওয়াচ বাছাই করতে পারেন। এই মোবাইল ঘড়ি গুলো এন্ড্রয়েড মোবাইল বা আইফোন (iOS) এর সাথে সহজেই কানেক্ট করে এর সকল সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

৩ হাজার টাকার মধ্যে মোটামুটি ভালো স্মার্ট ওয়াচ পাওয়া যাচ্ছে, যা বেশি দামের তুলনায় সামান্য পার্থক্য দেখা যায়। তবে এতে বেশি দামের স্মার্ট ওয়াচ এর সকল সুযোগ সুবিধা বা ফিচার দিয়ে থাকে। আপনার বাজেট যদি ৩ হাজার টাকার মধ্যে থাকে তাহলে আজকের পোস্টি আপনার জন্য। কারন, ৩০০০ টাকার স্মার্ট ওয়াচ এর ব্যাবহার বেশি, যা সবার সাধ্যের মধ্যে সেরা মানের ফিচারস দিয়ে থাকে। তুলনামূলকভাবে বেশি দামের স্মার্ট ওয়াচগুলো সামান্য একুরেট ফিচারস থাকে, তবে তা কম বাজেটের তুলনায় ততটা বেশি না। হ্যা, বেশি দামের মোবাইল ঘড়ি এর ডিজাইন এবং ওয়ারেন্টি, ফিচারস, একুরেসি ইত্যাদি বেশি থাকে। তবে স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ির ব্রান্ড অনুযায়ী একেকটি ব্রান্ডের ঘড়িতে একেক রকম ফিচারস থাকে।

কিন্তু ২০২৩ সালে যাদের কম বাজেট তাদের জন্য ৩ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ঘড়ি বা Smart Watch হবে। এতে উন্নত মানের সকল সুবিধা পাবেন। এই পোস্টের টাইটেল দেখে যেহেতু এই পোস্টটি পড়ছেন, বলা যায় আপনি কম বাজেটে বা কম দামে সেরা স্মার্ট ওয়াচ খুজছেন, আশা করি আজকের পোস্টে আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী একটি ভালো স্মার্ট ওয়াচ খুজে পেতে পারেন।

 

☞ আরো পড়ুন : কম দামে ভালো ল্যাপটপ | বাংলাদেশের সবচেয়ে ভালো ল্যাপটপ ২০২৩

 

তাই আজকে কম বাজেটে বা কম দামে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। এখানে প্রতিটি মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ ( Smart Watch) এর মুল্য তালিকা সহ এদের বিশেষ ফিচারস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। যা আপনি যেকোনো এন্ড্রয়েড মোবাইল বা আইফোন (iOS) এর সাথে কানেক্ট করে ব্যাবহার করতে পারবেন।

 

কম বাজেটে বা কম দামে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩

আজকের পোস্টে আমরা কম বাজেটে বা কম দামে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ বা Low Price Smart Watch / Low Budget Smart Watch এর একটি লিস্ট করেছি, যার মাধ্যমে আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো মোবাইল ঘড়ি বাছাই করতে পারেন। এদের বাংলাদেশ প্রাইস, ব্রান্ড সহ সকল ফিচার’স উল্লেখ করা হয়েছে। নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ

 

স্মার্ট ওয়াচপ্রাইস
Microwear W17 Smart Watch৳ ২০০০
Colmi C60 Smart Watch৳ ২৪০০
Xiaomi Haylou GST LS09B Smart Watch৳ ২৭৫০
Colmi C61 Smart Watch৳ ২৩৫০
Xiaomi IMILAB W01 Smart Watch৳ ২৪০০
G-TiDE S1 Lite Smart Watch৳ ৩০০০
Xiaomi Mibro A1 Smart Watch৳ ২৯০০
Xiaomi Mibro Color Smart Watch৳ ২৫৫০
HW8 Max Smart Watch৳ ২৫০০
HW8 Ultra Max Smart Watch৳ ২৫০০

 

Microwear W17 Smart Watch – প্রাইস ইন বাংলাদেশ

Microwear W17 স্মার্টওয়াচের বিশেষত্বগুলি হলো এর পূর্ণ ডিসপ্লে 1.9 ইঞ্চির আকর্ষণীয় রঙের এবং স্পষ্ট ডিসপ্লে প্রদান করেছে। এটি হাই-ডেফিনিশন (HD) রেঞ্জ প্রযুক্তি ব্যবহার করে যাতে আপনি অন্ধকার পরিস্থিতিতেও সুন্দর ডিসপ্লে ব্রাইটনেস উপভোগ করতে পারবেন। Microwear W17 স্মার্ট ওয়াচটির মধ্যে ৬টি পরিবর্তনযোগ্য মেনু অপশন রয়েছে, যা আপনি নিজের মতো করে মেনু পরিবর্তন করতে পারেন। Microwear W17 স্মার্টওয়াচে ওয়াচ ফেস রয়েছে ৫০০ টিরও বেশি, যা আপনি অ্যাপস থেকে খুব সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী।

এটি বিভিন্ন কার্যক্রমে,খেলাধুলা মনিটরিং হিসেবে ব্যবহারকারীদের সহায়তা করবে, যেমন ; পুশ নোটিফিকেশন, ব্লুটুথ কলিং ফিচার, ৮ প্রকার আবহাওয়ার পূর্বাভাস ফিচার, ব্লুটুথ ক্যামেরা কন্ট্রোল, মিউজিক কন্ট্রোল, রিমাইন্ডার ইত্যাদি। আপনি একাধিক খেলা ট্র্যাক করতে পারেন. যেমন; হাঁটা, দৌড়ানো, সাঁতার কাটা, আরোহণ, সাইক্লিং, ফুটবল, বাস্কেটবল, টেবিল টেনিস, ব্যাডমিন্টন ইত্যাদি সকল প্রকাল স্পোর্টস বা খেলাধুলা মনিটরিং করতে পারে। আপনি যখন ট্র্যাক করেন তখন বিভিন্ন স্পোর্টস মোড প্রায় বলতে গেলে সঠিক ফলাফল প্রদান করে থাকে।

Microwear W17 মোবাইল ঘড়িতে রয়েছে ডুয়েল-কোর, ডুয়াল-মোড প্রসেসর। একটি উচ্চ-পারফরম্যান্স লো-পাওয়ার Jieli AC6954 Bluetooth 5.0 চিপ, আপনি রেসপন্সিভ বড়-স্কেল গ্রাফিক্স এবং মাল্টি-টাস্কিং পারফরম্যান্স সুবিধা পাবেন। এটি একটি উচ্চ-দক্ষ প্রসেসর যা আপনাকে সকল কাজের সঠিক মনিটরিং করতে সাহায্য করবে। এটি ব্যবহার করে আপনি মোটামুটি সুইমিং বা হাত ধোয়ার কাজ সহজে করতে পারবেন, যা মোটামুটি ওয়াটারপ্রুফ বলা যায়। তবে বেশি সময় সুইমিং বা গোসল করতে পারবেন না।

একটি একুরেট হার্ট-রেট, অপটিক্যাল হাই-লেভেল সেন্সর ব্যবহার করে স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে আপনার হার্ট রেট সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন। এর মাধ্যমে আপনি যেকোনো সময়, যেকোনো জায়গায় আপনার রক্তচাপ পরীক্ষা করতে পারেন। এটি আপনার রক্তচাপের মোটামুটি একুরেট তথ্য সংগ্রহ করে এবং আপনার স্বাস্থ্যের জন্য একটি মূল্যবান ডিভাইস হিসেবে কাজ করবে। এটি আপনি আইফোন (iOS) এবং অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে এপ্লিকেশনের মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন। এর মোটামুটি ২ হাজার টাকার মধ্যে দামের মধ্যে পাবেন, যা ২০২৩ সালে ৩০০০ টাকা থেকে অনেক কম দামের স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে ভালো বলা যায়।

 

Microwear W17 Smart Watch স্পেসিফিকেশন:

  • ব্র্যান্ড: Microwear
  • মডেল: W17
  • CPU: AC6954
  • ঘড়ি কেস: মেটাল দিয়ে তৈরি
  • ঘড়ির ব্যান্ড: সিলিকন
  • চার্জিং: ম্যাগনেটিক চার্জার
  • ব্যাটারি: 380mAh
  • ডিসপ্লে : 1.9″HD 320*390 Pixel
  • ব্লুটুথ: 3.0 এবং 5.0 ব্লুটুথ কলিং
  • ডিসপ্লে: 2.5D কার্ভড ফুল টাচ ডিসপ্লে
  • রঙ: কালো, সিলভার, রোজ গোল্ড, নীল ইত্যাদি অ্যাভেলেবল
  • সিস্টেম: iOS, Android Harmonyos
  • আকার: 45*38*10.7 মি.মি
  • ওজন: 50 গ্রাম

 

Colmi C60 Smart Watch – প্রাইস ইন বাংলাদেশ

COLMI C60 স্মার্ট ওয়াচটি একটি ১.৯ ইঞ্চি ওয়াটারপ্রুফ ব্লুটুথ কলিং স্মার্টওয়াচ। এটি ১.৯” বড় টাচ-কন্ট্রোল ডিসপ্লে আছে যা দেখতে আকর্ষণীয়। এটির স্ক্রিন অনুপাতে শীর্ষস্থানে রয়েছে, কারন ভিজুয়াল ইফেক্ট এবং স্ক্রিন রেশিও খুবই সুন্দরভাবে হাতে ফিট হয় । COLMI C60 মোবাইল ঘড়িতে ১৯টি এক্সারসাইজ মোড, স্টপওয়াচ, স্পোর্টস ডেটা রিপোর্ট, ২৪/৭ হার্ট রেট মনিটর, ব্লাড প্রেশার মনিটর, Spo2 মনিটর, স্লিপ ট্র্যাকার, শ্বাস, অ্যালার্ম ক্লক, কাস্টম ওয়াচ ফেস, ভালো মানের মাইক্রোফোন, হাই-ফাই স্পিকার, ব্লুটুথ কলিং ফিচার সহ বিভিন্ন ফিচার যুক্ত করা আছে । স্পোর্টস টি আপনার জন্য স্বাস্থ্য সেবা ও স্পোর্টস রিলেটেড সকল সুবিধা দিয়ে থাকবে।

এই স্মার্টওয়াচটির ব্যাটারি ক্ষমতা ২৯০ mAh। যা অনায়াসে ১০ থেকে ১৫ দিন ব্লুটুথ কানেকশন ছাড়া ব্যবহার করতে পারবেন। এটি সঠিক হার্ট রেট মনিটরিং এবং Spo2 ট্র্যাকিং সাপোর্ট করে। এর ওয়াটারপ্রুফ রেটিং IP67। তাই এটি হাত ধোয়া, বৃষ্টি, ব্যায়াম করা এবং ঘর্ষণ করা সময়ে পরিধান করা যায় মোটামুটি সব করা যাবে, তবে আপনি এটি পরিধান করে বেশি সময় ধরে গোসল করা বা বেশি পানির নিচে সুইমিং করতে পারবেন না। ২০২৩ সালে কম দামের স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে ওয়াটারপ্রুফ রেটিং মোটামুটি ভালই এটার।

এই স্মার্টটি খুবই স্পেশাল এবং সুন্দর ডিজাইনের এবং এটি আপনার হাতে যথেষ্ট পরিমাণ সুন্দর মানাবে কিন্তু এর একটি খারাপ দিক রয়েছে, তা হলো COLMI C60 এর কোনও ওয়ারেন্টি নেই। তবে আপনি এটি নির্দ্বিধায় ব্যবহার করতে পারেন, খুব কম সংখ্যক মোবাইল ঘড়িতে সমস্যা দেয় তবে আপনি এটি নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন। ২৪০০ থেকে ২৫০০ টাকার মধ্যে আপনি এটি পেয়ে যাবেন। যা বাংলাদেশের ৩ হাজার টাকা দামের মধ্যে এটি খুবই ভালো মানের একটি স্মার্ট ডিভাইস বা মোবাইল ঘড়ি।

 

COLMI C60 মোবাইল ঘড়ি স্পেসিফিকেশন:

  • মডেল : RTL8762DK
  • ডিসপ্লে : আইপিএস 1.9 ইঞ্চি 240×280 পিক্সেল
  • ওয়াটারপ্রুফ : IP67 রেটিং
  • ব্লুটুথ : BT5.1
  • স্ট্র্যাপ ম্যাটেরিয়াল : সিলিকন দিয়ে তৈরি
  • ব্যাটারি : 210mAh
  • ব্যবহার করার সময়: 5 থেকে 7 দিন
  • স্ট্যান্ডবাই সময়: 30 দিন

 

Xiaomi Haylou GST LS09B Smart Watch – বাংলাদেশ প্রাইস

Haylou GST LS09B স্মার্টওয়্যাচের বিশেষ বৈশিষ্ট্যসমূহ একটি স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ি। এই স্মার্টওয়্যাচটি খুবই হালকা এবং সুবিধাজনক ডিজাইন দেওয়া হয়েছে। এটি আপনাকে ১২টি ওয়ার্কআউট মোড, SpO2 ট্র্যাকিং ও হার্ট রেট মনিটরিং, স্লিপ মনিটরিং, কাস্টমাইজড ওয়াচ ফেস, ২০ দিনের ব্যাটারি লাইফ দিতে সক্ষম কারন এতে রয়েছে 220mAh ব্যাটারি এবং IP68 ধুলো এবং ওয়াটারপ্রুফ সুবিধা দিতে সক্ষম, এর মাধ্যমে আপনি হাত ধোয়া, সুইমিং ওযু করতে পারবেন, কিন্তু বেশি গভীর পানিতে না নেয়া ভালো।

এছাড়াও এটির ডিসপ্লে ১.৬৯” এইচডি ডিসপ্লে, ফুল-স্ক্রিন টাচ কন্ট্রোল, ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস সহ উজ্জ্বল এবং পরিমাণমূলক আলো সরবরাহ করে। যা দিনের আলোতেও আপনি এর ডিসপ্লে খুব সুন্দর ভাবে দেখতে পারবেন। এটি ব্যবহার করা খুব সুবিধাজনক এবং হাতে সুন্দরভাবে ফিট করবে কারন এটি সিলিকন স্ট্র্যাপ দিয়ে তৈরি। এছাড়াও Haylou Fun অ্যাপটি Xiaomi Haylou GST LS09B স্মার্টও য়্যাচের সাথে কানেক্ট করতে পারবেন এবং এই অ্যাপের মাধ্যমে ওয়াচ ফেস, সময়, কাস্টমস ফেস ইত্যাদি সহজেই আপডেট করতে পারবেন যা একটা আকর্ষণীয় দিক। এটিতে বিভিন্ন রকম ডিজাইনের বাস ফেস আছে, যা আপনি কাস্টম ভাবে নিজের ওয়াস ফেস তৈরি করতে পারবেন।

আপনি আপনার পছন্দের ছবি দিয়ে Xiaomi Haylou GST LS09B এর ওয়াচ ফেসটিও কাস্টমাইজ করতে পারেন। এটি আপনাকে সময়মতো আপনার হাঁটা, দূরত্ব, ক্যালরি মনিটরিং, সাইকেলিং, দৌড়, খেলাধুলা সহ বিভিন্ন স্পোর্টস বিষয়ক মোড রয়েছে, যার মাধ্যমে আপনি সকল একটিভিটি সঠিকভাবে মাপতে পারবেন। শাওমি স্মার্ট ওয়াচ দাবি করে যে এটির নরমাল ব্যবহারের মাধ্যমে ২০ দিনের মতো ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন। তবে আপনি যদি ব্লুটুথ কানেক্ট করে রাখেন সব সময় তাহলে দুই থেকে পাঁচ দিনের মতো ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন। এছাড়াও এতে মিউজিক কন্ট্রোল, Spo2 মনিটরিং, ১২ টি স্পোর্টস মুড যুক্ত করা আছে, যার মাধ্যমে সহজেই আপনি দৈনন্দিন খেলাধুলা, ব্যায়াম, হাটা যদি সহজেই মনিটরিং করতে পারবেন। শাওমি স্মার্ট ওয়াচ বাজেট অনুযায়ী কম দামে বাজারে পাওয়া যায়। বাংলাদেশের প্রাইস হল ২৭৫০ টাকা এর কাছাকাছি বা কিছু বেশি হতে পারে। এতে আপনি ছয় মাসের অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি পাবেন। যা শাওমি স্মার্ট অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি, কোন সমস্যা হলে আপনি ওয়ারেন্টিতে দিয়ে, সব সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।

 

Xiaomi Haylou GST LS09B স্পেসিফিকেশন :

  • ব্র্যান্ড : Haylou
  • ঘড়ির আকার : 49.9×38.7×11.7 মিমি
  • ডায়াল আকৃতি : বর্গাকৃতি
  • ডিসপ্লে সাইজ : 1.69 ইঞ্চি
  • ডিসপ্লে : এইচডি ডিসপ্লে
  • অপারেটিং সিস্টেম : Android 5.0 এবং তার উপরে, iOS 10.0 এবং তার উপরে ভার্সনগুলো সহজে কানেক্ট করতে পারবেন
  • স্পোর্টস মুড : 12+ স্পোর্টস মোড
  • ওয়াটারপ্রুফ রেটিং : IP68
  • সেন্সর : হার্ট রেট সেন্সর, মোশন সেন্সর, রক্তের অক্সিজেন সেন্সর
  • ব্লুটুথ : 5.0
  • ব্যাটারি : 220 mAh
  • ওজন : 50 গ্রাম
  • স্ট্রাট সাইজ : 22 মিমি
  • অ্যাপ্লিকেশন নাম : Haylou Fun

 

Colmi C61 Smart Watch – প্রাইস ইন বাংলাদেশ

Colmi C61 ব্লুটুথ কলিং স্মার্ট ওয়াচ একটি আকর্ষণীয় উপায়ে আপনার স্মার্টফোনের সাথে অ্যাপের সাহায্য সংযুক্ত করতে পারবেন। এই অদ্ভুত ওয়াচটি আপনাকে স্থিতিস্থাপনে সহায়তা করবে এবং আপনার স্বাস্থ্য ও ফিটনেস উন্নতির জন্য আপনাকে অনেক সুবিধা দিবে। এতে আরো অনেক চমৎকার কিছু ফিচারস রয়েছে যেমন ; Colmi C61 একটি ১.৯ ইঞ্চি বর্গাকার আইপিএস এইচডি স্ক্রিন সহ আসে, যা ২৪০×২৮০ পিক্সেলের রেজোলিউশন দিয়ে আপনাকে একটি স্পষ্ট ওয়াচ ইন্টারফেস দেখাতে সাহায্য করবে এবং Colmi C61 মোবাইল ঘড়িটিতে একটি RTL8762D চিপ এবং Bluetooth 5.1 লো এনার্জি প্রযুক্তি দ্বারা তৈরি করা হয়েছে, যা শক্তিশালী ওয়াচ সাপোর্ট করে।

Colmi C61 স্মার্ট ওয়াচটিতে ২৩০mAh ব্যাটারি সহযুক্ত যা স্বাভাবিক ব্যবহারের জন্য ৫-৭ দিন এবং স্ট্যান্ডবাই সময়ের জন্য ১৫ দিন ধরে ব্যবহার করতে পারবেন। Colmi C61 ব্লুটুথ কলিং স্মার্ট ওয়াচ একটি সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে একটি বলা যায়। এই ওয়াচটি আপনার স্মার্টফোনের সাথে সহজেই অ্যাপসের মাধ্যমে কানেক্ট করতে পারবেন এবং আপনাকে অনেক সুবিধা দিবে। এতে কলিং ফিচার থাকায় আপনি এত সহজে ব্লুটুথ কানেক্ট করে আপনার মোবাইল ফোনে আসা কল রিসিভ এবং কথা বলতে পারবেন এবং মিউজিক কন্ট্রোল সহ ১৫০ এর বেশি ওয়াজ ফেস রয়েছে। যা আপনি কাস্টমাইজ করে নিজের মতো করে ব্যবহার করতে পারবেন।

Colmi C61 মোবাইল ঘড়িতে কম দামের সেরা স্মার্ট ওয়াচ হিসেবে বলা যায়। কারন, ১১০ টির মতো স্পোর্টস মুড আছে। যার মাধ্যমে আপনি ব্যায়াম, হাটা, দৌড়, সুইমিং করা এবং খেলাধুলা সহ বিভিন্ন এক্টিভিটি মনিটরিং করতে পারবেন। আরেকটি বৈশিষ্ট্য হলো IP67 ওয়াটারপ্রুফ, এই হাত ঘড়ি পড়ে বৃষ্টির মধ্যে হাটা, মোটামুটি সুইমিং করা, ওযু করা বা হাত ধোয়াসহ মোটামুটি পানি বা ধুলোতে কোনো সমস্যা হবে না। তবে এতে কলিং ফিচার থাকায় পানির বেশি গভীরের না যাওয়াই ভালো। এটি বাংলাদেশে কম বাজেটে বা কম দামে স্মার্ট ওয়াচ টি পে যাবেন। যার বাংলাদেশ এর প্রাইস হলো ২৩৫০ টাকার মতো। যে অনন্য স্মার্ট ওয়াচ এর তুলনায় অনেক কম দামে মোবাইল ঘড়ি হিসেবে পাবেন। কিন্তু এই হাত ঘড়িটিতে ওয়ারেন্টি নেই।

 

Colmi C61 মোবাইল ঘড়ি স্পেসিফিকেশন :

  • ব্রান্ড : Colmi
  • প্রধান চিপসেট: Realtek RTL8762D
  • সেকেন্ডারি চিপসেট: JieLi HN333
  • HR সেন্সর: VP60A
  • স্ক্রিন সাইজ : 1.9 ইঞ্চি
  • ব্যাটারি ক্যাপাসিটি: 230 mAh
  • ব্যাটারি লাইফ : 5-7 দিন তবে ব্লুটুথ কানেক্টিং ছাড়া ব্যবহার করলে ১০ থেকে ১৫ দিন চার্জিং ব্যাকআপ পাবেন।
  • ওয়াটারপ্রুফ রেটিং : IP67 ওয়াটারপ্রুফ
  • অ্যাপ: FitCloud Pro
  • Android 4.4 বা উচ্চতর, বা iOS 9.0 বা উচ্চতর সহ মোবাইল ফোনের জন্য উপযুক্ত।

 

Xiaomi IMILAB W01 Smart Watch – বাংলাদেশ প্রাইস

Xiaomi IMILAB W01 ফিটনেস স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ি হলো IMILAB এর সর্বশেষ মডেল। IMILAB W01 স্মার্ট ওয়াচ একটি আকর্ষণীয় ফিটনেস স্মার্টওয়্যাচ, যা 70+ স্পোর্টস মোড সাপোর্ট করে এবং একটি বড় এবং উজ্জ্বল 1.69 ইঞ্চি ফুল-টাচ স্ক্রিন প্রদান করেছে । স্ক্রিনটি অরিজিনাল রঙের ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। এর মাধ্যমে সঠিক হার্ট রেট মনিটরিং দ্বারা, IMILAB W01 স্মার্ট ওয়াচ আপনাকে সঠিকভাবে সময়ের মধ্যে হাটার পদক্ষেপ, সারাদিনের হার্ট রেট মনিটরিং, যাত্রা করা দূরত্ব, সারাদিন ব্যবহৃত ক্যালোরি, ঘুমের মান এবং ঘুমের প্যাটার্ন সঠিকভাবে ট্র্যাক করতে এই স্মার্ট অস্থির তুলনা নেই। কম দামে স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে বিভিন্ন ফিচারস দিয়ে থাকে।

এছাড়াও এটি রিয়েল-টাইম SpO2 মনিটরিং সাপোর্ট করে এবং স্লিম বডির ভিতরে এটির ব্যাটারি 220mAh, যা প্রায় ১৫ দিনের মত ব্যবহার করতে পারবেন। কম দামের স্মার্ট ওয়াচ এর আরেকটি সুবিধা হল 3ATM ওয়াটারপ্রুফ প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়েছে , IMILAB W01 স্মার্ট ওয়াচ পানির বেশি গভীরে না গেলেও আপনি হাত ধোয়া, ওযু করা বা সামান্য সুইমিং এবং বৃষ্টিতে ভিজতে পারবে। Xiaomi IMILAB W01 ফিটনেস স্মার্টওয়াচটি একটি কম বাজেটে বা কম দামে সেরা স্মার্ট ওয়াচ যা আপনাকে ৭০+ স্পোর্টস মোড আছে। এটির মধ্যে একটি বড় এবং উজ্জ্বল ১.৬৯-ইঞ্চি ফুল-টাচ স্ক্রিন রয়েছে। এই স্ক্রিনটি অরিজিনাল রঙ প্রদর্শন করতে সক্ষম।

নির্দিষ্ট হার্ট রেট মনিটরিং দ্বারা, Xiaomi IMILAB W01 স্মার্টওয়াচ আপনাকে সঠিকভাবে সময়ের মধ্যে হাঁটা, সারাদিনের হার্ট রেট মনিটরিং, যাত্রা করা দূরত্ব, ব্যবহৃত ক্যালরি, ঘুমের সময় এবং ঘুমের প্যাটার্ন সঠিকভাবে ট্র্যাক করতে পারবেন, এটি বাংলাদেশে খুব কম দামে পাওয়া যায়। এই মোবাইল ঘড়ি বা হাত ঘড়ি তে স্টাইলিশ কাস্টম ওয়াচ ফেস ব্যবহার করতে পারবেন। IMILAB W01 স্মার্ট ওয়াচটিতে ৬ মাসের অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে, এই ওয়ারেন্টি শাওমি স্মার্ট ওয়াচ অফিসিয়াল ভাবে দিয়ে থাকে এবং এর বাংলাদেশ বাজার মূল্য ২৪০০ টাকা এর মত। শাওমি ব্রান্ডের এই স্মার্ট ওয়াচটিতে আরো অনেক সুবিধা পাবেন। তবে এতে কলিং ফিচার নেই।

 

Xiaomi MILAB W01 স্পেসিফিকেশন :

  • মডেল : MILAB W01
  • ব্র্যান্ড : Xiaomi
  • ডিসপ্লে : 1.69-ইঞ্চি ফুল-টাচ স্ক্রিন স্কয়ার ডিসপ্লে
  • সংযোগ : 5.0 ব্লুটুথ
  • সেন্সর : SpO2 মনিটর, 24 ঘন্টা বায়ো ট্র্যাকার, 24 ঘন্টা হার্ট রেট মনিটরিং, ফিমেল কেয়ারিং ইত্যাদি।
  • ব্যাটারি : 220mAh ব্যাটারি
  • অপারেটিং সিস্টেম : অ্যান্ড্রয়েড
  • ওয়াটারপ্রুফ রেটিং : 3ATM ওয়াটার রেসিস্টেন্স

 

G-TiDE S1 Lite Smart Watch – প্রাইস ইন বাংলাদেশ

G-TiDE S1 Lite ব্লুটুথ কলিং স্মার্টওয়াচটি 1.83-ইঞ্চি ফুল-টাচ লার্জ স্ক্রিন ডিসপ্লে প্রদান করেছে। যা খুবই স্মুদ এবং ফ্লেক্সিবল টাচ রেসপন্সিভ এবং হাই রেজোলিউশন ডিসপ্লে। G-TiDE S1 Lite স্মার্ট ওয়াচ টি 300mAh ব্যাটারি সহযুক্ত এবং এটি সম্পূর্ণ চার্জ হয় মাত্র ২ ঘন্টার মধ্যে। এটি ১০ থেকে ১৫ দিনের মতো ব্যবহার করতে পারবেন। স্মার্টওয়াচটি আপনার রিয়েল টাইম হট মনিটরিং করতে পারে, আপনার রক্তের অক্সিজেন (SPO2) ম্যানুয়ালি পরীক্ষা করতে পারবেন এবং আপনার ঘুমের মান সঠিকভাবে প্রদান করে যেমন; গভীর ঘুম, হালকা ঘুম এবং জাগরণের সময় ইত্যাদি যাতে আপনি একটি স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করতে পারেন।

G-TiDE S1 Lite মোবাইল ঘড়ি তে আপনি ১০০ টিরও বেশি ডায়াল UI স্যুইচ বা ওয়াচ ফেস ব্যাবহার করতে পারেন এবং তা কাস্টমাইজ করতে পারেন। G-TiDE S1 Lite স্মার্টওয়াচটি এক্সট্রা নীল সিলিকন স্ট্র‍্যাপ দিয়ে থাকে। এটির মাধ্যমে আপনি ১০ মিটার পর্যন্ত ওয়াটারপ্রুফ সুরক্ষা পাবেন। G-TiDE S1 Lite কম দামের স্মার্ট টি তে ব্লুটুথ কলিং ফিচার পাবেন, য স্মার্টওয়াচটি একটি আকর্ষণীয় ডিজাইন সহযুক্ত একটি ২০২৩ সালের সেরা স্মার্ট ওয়াচ। এটির 1.83 ইঞ্চি ফুল-টাচ স্ক্রিন আছে। এটার বাংলাদেশ মূল্য প্রায় ৩ হাজার টাকার মধ্যে ভালো স্মার্ট ওয়াচ। ২০২৩ সালে একটি সেরা কম দামের মোবাইল ঘড়ি’র এর মধ্যে একটি। এবং যদি এক বছরের অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি থাকে।

 

G-TiDE S1 Lite মোবাইল ঘড়ি স্পেসিফিকেশন :

  • ব্যাটারি : 300mAh
  • রঙ : বাদামি রঙ
  • ডিসপ্লে সাইজ : 1.83 ইঞ্চি গোলাকার IPS ডিসপ্লে
  • মাইক্রোফোন : হ্যা
  • Model : S1 Lite
  • Display Screen : HD IPSB
  • ব্লুটুথ : সাপোর্টেড
  • সেন্সর : হার্ট রেট সেন্সর VC52
  • ওয়ারেন্টি : 1 বছর

 

Xiaomi Mibro A1 Smart Watch – প্রাইস ইন বাংলাদেশ

Xiaomi Mibro Watch A1 এর একটি স্টাইলিশ ডিজাইন রয়েছে যা হাতে পরলে আকর্ষণীয় করে তুলবে। এর 5 মি.মি পাতলা ঘড়ি আপনার জন্য সেরা স্মার্ট ওয়াচ। এটির চমৎকার পাতলা ডিজাইন করে তৈরি। স্বাস্থ্যসেবার জন্য এটির তুলনা নেই কারন এতে, আপনার স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং আপনার স্বাস্থ্য মনিটরিং করায় আপনাকে সহায়তা করার জন্য রিয়েল-টাইম হার্ট রেট মনিটরিং করবে যা দিনে 24 ঘন্টা কাজ করে। বিভিন্ন সমস্যা সতর্কতা এবং কার্যকলাপ, বিশ্রাম এবং ঘুম যদি সঠিকভাবে মনিটরিং করতে সক্ষম। আপনি যখন ব্যায়াম করবেন, তখন আপনার স্বাস্থ্য জুড়ে মনিটরিং করবে, যা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য অনেক সাহায্যকারী ডিভাইস হিসেবে কাজ করবে। এটিতে বড় ধরনের একটি ব্যাটারি লাইফ পাবেন, সম্পূর্ণরূপে চার্জ করা হলে এবং দৈনিক মোড 10 দিন স্থায়ী হয় এবং বেসিক মোড 45 দিন পর্যন্ত চার্জিং ব্যাকআপ দিবে।

মোবাইল ফোন অ্যাপের সাথে কানেক্ট করে একবার সম্পূর্ণ চার্জ হয়ে গেলে এটি ব্যবহার করা যাবে, এর কিছু এক্সট্রা ফিচার রয়েছে যেমন: 24 ঘন্টা হার্ট রেট মনিটরিং, ঘুম পর্যবেক্ষণ, গড়ে প্রতি সপ্তাহে 60 মিনিটের ক্রীড়া ব্যায়াম মনিটর, 100টি বার্তা এবং 6টি প্রতিদিন কল করা, স্ক্রীন জ্বালিয়ে এবং কব্জি 60 বার উত্থাপন করে সময় পরীক্ষা করা, একদিনে 3 বার অ্যালার্ম সেট করাসহ কআরো অন্যান্য ফিচার রয়েছে । Xiaomi Mibro Watch A1 স্মার্ট ওয়াচ টিতে 5ATM ওয়াটারপ্রুফ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে যা, অনেক পরিস্থিতিতে নিখুঁত করে ফলাফল দিতে পারে। আরও দক্ষ ওয়ার্ক আউটের জন্য বিভিন্ন স্পোর্টস মোড রয়েছে যেমন: দৌড়ানো, সাইকেল চালানো, আরোহণ এবং সাঁতার সহ 20টি পেশাদার ক্রীড়া মোড সাপোর্ট করে। Xiaomi Mibro Watch A1 স্মার্ট ওয়াচ 06 মাসের শাওমি স্মার্ট ওয়াচ এর অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে। এটি বাংলাদেশের মূল্য প্রায় ২৯০০ টাকা এর মত। এটি এন্ড্রয়েড মোবাইল সহ আই ফোনে কানেক্ট করা যায়।

 

Xiaomi Mibro Watch A1 স্মার্ট ওয়াচ স্পেসিফিকেশন :

  • ব্রান্ড নাম: Mibro / Xiaomi
  • বডি সাইজ : 45 মি.মি
  • ব্যান্ডের সাইজ: প্রস্থ = 22 মিমি
  • ওজন: 42g (স্ট্র্যাপ সহ)
  • উপাদান: মেটাল বডি + সিলিকন স্ট্র্যাপ।
  • স্ক্রিন সাইজ : 1.28 ইঞ্চি রাউন্ড এইচডি স্ক্রিন।
  • ব্যাটারি : 270mAh
  • স্ট্যান্ডবাই: দৈনিক মোড 10 দিন, মৌলিক মোড 45 দিনের বেশি
  • চার্জিং: ম্যাগনেটিক চার্জিং
  • ব্লুটুথ সংস্করণ: V5.0
  • সেন্সর: PPG হার্ট রেট, রক্তের অক্সিজেন, Acc সেন্সর
  • ওয়াটার রেসিস্টেন্স : 5ATM ওয়াটারপ্রুফ
  • অ্যাপের সামঞ্জস্যতা: অ্যান্ড্রয়েড 5.0 এবং তার উপরে, iOS10.0 এবং তার বেশির সাথে সহজেই কানেক্ট করা যায়।

 

Xiaomi Mibro Color Smart Watch – বাংলাদেশ প্রাইস

Xiaomi Mibro Color স্মার্টওয়াচ আপনার দিনটিকে সুন্দর করে তোলে ১.৫৭ এইচডি ফুল-কালার টাচ স্ক্রিন ডায়মন্ড কাটিং টেকনোলজি দ্বারা তৈরি করা হয়েছে, যা উজ্জ্বল রঙ এবং মসৃণ পঠনযোগ্যতা প্রদর্শন নিশ্চিত করে। এছাড়াও, আমরা ঘড়ির স্ক্রীনের পৃষ্ঠে অ্যান্টি-ফিঙ্গারপ্রিন্ট তেল প্রযুক্তি যুক্ত করেছি, স্ক্রীনকে সর্বদা পরিষ্কার এবং পরিষ্কার রেখে। 24/7 হার্ট রেট পর্যবেক্ষণসহ স্লিপ ট্র্যাকিং, শরীরের চাপ পরীক্ষা, কাস্টমাইজড ওয়াচ ফেস, 15 স্পোর্ট মোড, 10 দিনের ব্যাটারি ব্যাকআপ এবং 5ATM ওয়াটারপ্রুফ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে।

আপনি যখন ব্যায়াম করছেন বা ঘুমাচ্ছেন তখন Xiaomi Mibro Color গতিশীলভাবে আপনার হার্ট রেট পরীক্ষা করতে পারে। কোনো সমস্যা থাকলে অ্যাপটি আপনাকে সময়মতো সতর্ক করবে এবং রক্তের অক্সিজেন স্যাচুরেশন বিপাকীয় সঞ্চালনের একটি গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে কাজ করবে। মানুষের শরীরের স্বাভাবিক রক্তের অক্সিজেন স্যাচুরেশন 95% এর উপরে। Xiaomi Mibro Color হাত ঘড়ি টি সঠিক ভাবে Spo2 মনিটরিং করতে পারে। এটি আপনার ঘুমের সময় এবং ঘুমের গুণমানকে শরীরের গতিবিধির মাধ্যমে বিস্তারিতভাবে রেকর্ড করতে সক্ষম।

Xiaomi Mibro Color স্মার্ট ওয়াচটি হার্ট রেট, ক্যালোরি এবং ওয়ার্কআউটের সময়কাল সহ আপনার রিয়েল-টাইম ফিটনেস ডেটা ট্র্যাক করতে মাইব্রো কালার আপনাকে 15টি স্পোর্ট মোড সাপোর্ট করে। এটির বাংলাদেশ প্রাইস প্রায় ২৫৫০ টাকার মতো। শাওমি স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে এটি কম দামে সেরা স্মার্ট ওয়াচ বলা যায়।

 

Xiaomi Mibro Color স্মার্ট ওয়াচ স্পেসিফিকেশন :

  • ব্রান্ড নাম: Mibro / Xiaomi
  • মডেল: XPAW002
  • বডি সাইজ : 43*35 মিমি, পুরুত্ব = 10.2 মিমি
  • স্ট্র্যাপ সাইজ : প্রস্থ = 20 মি.মি
  • ওজন: 52g (স্ট্র্যাপ সহ)
  • উপাদান: মেটাল+পিসি/ABS+ তরল সিলিকন রাবার
  • ডিসপ্লে: 1.57 ইঞ্চি এইচডি স্ক্রিন
  • ব্যাটারি : 270mAh
  • ব্যাটারি লাইফ: দৈনিক মোড 7-দিন, বেসিক মোড 10-দিন৷
  • চার্জ: ম্যাগনেটিক চার্জিং
  • ব্লুটুথ : V5.0
  • সেন্সর: পিপিজি হার্ট রেট, ব্লাড অক্সিজেন, এসিসি সেন্সর
  • ওয়াটারপ্রুফ রেটিং : 5ATM ধুলো / ওয়াটার রেসিস্টেন্স

 

HW8 Max Smart Watch – বাংলাদেশ প্রাইস

HW8 Max স্মার্ট ওয়াচটি একটি ১.৯৯ ইঞ্চির রেটিনা ফুল-স্ক্রিন বেজেল-লেস ডিসপ্লে দিয়ে তৈরি করা হয়েছে, যা ৪২০×৪৮০ উচ্চ রেজোলিউশন সহ উজ্জ্বল ও অন্ধকারেও পর্যাপ্ত স্পষ্ট ডিসপ্লে উজ্জ্বল থাকে। এই স্মার্ট ওয়াচটি একটি আইপি 67 ওয়াটারপ্রুফ রেটিং সহ তৈরি করা হয়েছে, যা এটিকে বৃষ্টিপাত ও ঘামের থেকে নিরাপদ রাখে। HW8 Max স্মার্ট ওয়াচটিতে ২২০MAh ব্যাটারি ক্ষমতা রয়েছে যা আপনাকে একবার ফুল চার্জের পর পর্যন্ত ৭ থেকে ১০ দিনের ব্যাটারি ব্যাকআপ দিবে। এটিতে একটি ডিজিটাল হার্ট রেট মনিটরিং সেন্সর রয়েছে যা ২৪ ঘন্টা হার্ট রেট মনিটরিং সম্পর্কিত সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে এবং আমাদের ঘুমও মনিটরিং করতে পারে।

HW8 Max স্মার্ট ওয়াচটি একটি স্মার্ট রিমোট হিসাবে কাজ করতে পারে। এর মাধ্যমে আপনি ব্রাউজ করতে এবং ভিডিও এবং লাইভ ব্রডকাস্ট দেখতে ব্যবহার করতে পারেন। এটিতে একটি স্মার্ট এআই এসিস্ট্যান্ট রয়েছে, যা আপনাকে কলিং ফিচার দিয়েছে, যা এর মাধ্যমে ব্লুটুথ কল সাপোর্ট করে এবং আবহাওয়া সম্পর্কে সঠিক তথ্য দিতে পারে এবং অন্যান্য কাজগুলি করতে সাহায্য করতে পারে, বিভিন্ন স্পোর্টস মোড যেমন; ব্যায়াম করা, হাটা, খেলাধুলা করা, মেয়েদের জন্য আলাদা ফিচার রয়েছে। একটি এপস কানেক্ট করে আপনি এটি সকল সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। এটির বাংলাদেশ প্রাইস হল প্রায় ২৫০০ টাকার মতো।

 

HW8 MAX স্মার্ট ওয়াচ স্পেসিফিকেশন :

  • মোডেল নাম: HW8 MAX
  • ব্যাটারির : 180-220mAh
  • ওয়াটারপ্রুফ রেটিং : ওয়াটারপ্রুফ নয়
  • CPU মডেল: Hs6621PG
  • স্ট্র্যাপ : সিলিকা জেল
  • আকৃতি: বর্গাকার
  • রেজোলিউশন: 420*480
  • অ্যাপের নাম: Wearfit pro
  • স্ক্রিন উপাদান: TFT
  • ডিসপ্লে আকার: 1.99 ইঞ্চি
  • জেন্ডার : পুরুষ, মহিলা, মেয়ে সহ সবার জন্য
  • সিরিজ: সিরিজ 7
  • রঙ: কালো, নীল, গোলাপী, রূপালী।

 

HW8 Ultra Max Smart Watch – বাংলাদেশ প্রাইস

HW8 Ultra Max স্মার্ট ওয়াচ 1.99 ইঞ্চি আল্ট্রা-ওয়াইড ফুল টাচ কালার স্ক্রিন, খুব পাতলা স্ক্রিন বেজেল, রেজোলিউশন হলো 420*480 এবং NFC সাপোর্টেড এবং অফলাইন পেমেন্ট ( Alipay and Wechat pay ) এটির নতুন ভাবে পাওয়ার সেভিং মোড যোগ করা হয়েছে, আপনি স্মার্ট ঘড়িটিকে এনালগ ঘড়ির মোডে স্যুইচ করতে পারেন, আবার স্মার্ট ওয়াচ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এমন করে ক্ষেত্রে স্ক্রিনটি শুধুমাত্র সময় প্রদর্শন করে, যা ঘড়ির ব্যাটারি লাইফকে বৃদ্ধি করতে সহায়তা। সরাসরি ঘড়ি থেকে সময় সেটিং ফাংশন, সময় এবং তারিখ পরিবর্তন করতে পারবেন অথবা ঘড়ির অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে পরিবর্তন করতে পারবেন।

HW8 Ultra Max স্মার্ট ওয়াচটিতে ব্লুটুথ কলিং সিস্টেম রয়েছে, এর মাধ্যমে আপনি মাইক্রোফোন দিয়ে কথা বলতে পারবেন এবং কাউকে কল দিতে এবং কল রিসিভ করতে পারবেন খুব সহজেই। এই মোবাইল ঘড়িটিতে মেসেজ নোটিফিকেশন সাপোর্ট করে, আপনি যদি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে কানেক্ট করে থাকেন তাহলে আপনার ফোনে আসা সকল নোটিফিকেশন স্মার্ট ওয়াচের মাধ্যমে দেখতে পারবেন। HW8 Ultra Max স্মার্ট ওয়াচ এ 200mAh ব্যাটারি এবং ওয়ারলেস চার্জিং সিস্টেম রয়েছে। ৫০০+ ওয়াচ ফেস রয়েছে, এবং আপনি চাইলে কাস্টম ভাবে ওয়াচ ফেস পরিবর্তন করতে পারবেন।

HW8 Ultra Max স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ি তে লোকেশন শেয়ার, ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্স, বিভিন্ন স্পোর্টস মোড যেমন : ব্যায়াম করা, হাটা, খেলাধুলা করা ইত্যাদি খুব সহজেই মনিটরিং করতে পারবেন। এটি বাংলাদেশের মধ্যে কম দামের সেরা স্মার্ট ওয়াচ এবং এর বাংলাদেশ প্রাইস প্রায় ২৫০০ টাকার মতো।

 

HW8 Ultra Max স্মার্ট ওয়াচ স্পেসিফিকেশন :

  • স্ক্রিন: 2.02 ইঞ্চি TFT LCD স্ক্রিন
  • স্ক্রীন রেজোলিউশন: 420×480 রেজোলিউশন।
  • টাচ স্ক্রিন: ফুল স্ক্রিন টাচ + ফিজিক্যাল বোতাম
  • ডিসপ্লে সাইজ: 2.02 ইঞ্চি
  • ব্যাটারি: 200 mAh
  • ব্লুটুথ : ব্লুটুথ 5.2
  • অপারেটিং সিস্টেম : IOS 10.0 বা তার উপরে/ Android 5.0 বা আরো বেশি।
  • অ্যাপ: Wearfit Pro
  • ব্যাটারি ক্ষমতা: 180-220mAh
  • ওয়াটারপ্রুফ রেটিং : IP67 / IP68 ধুলো ও ওয়াটার রেসিস্টেন্স
  • স্ট্র্যাপ : সিলিকন
  • ডিসপ্লে আকৃতি: বর্গাকৃতি

 

☞ আরো পড়ুন : ২০২৩ সালে সেরা গেমিং ফোন বাছাই করার উপায় বিস্তারিত

 

২০২৩ সালে স্মার্ট ওয়াচ ব্যাবহার এর সুবিধা বা প্রয়োজনীয়তা কি?

২০২৩ সালে স্মার্টওয়াচ হলো একটি উন্নত প্রযুক্তিগত উপকরণ, যা কয়েকটি সেন্সর, ডিসপ্লে এবং সংযোগযোগের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে। এই ডিভাইসটি সম্পূর্ণ আপনার হাতে পরিধান অবস্থা থেকে তথ্য সংগ্রহ করতে পারে এবং তা আপনাকে সঠিক সময়ে দেখাতে সাহায্য করে, মুলত এগুলো এনালগ ঘড়িতেও বিদ্যমান। কিন্তু স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ির কিছু সত্য রয়েছে। যেমন:

স্মার্ট ওয়াচের সাথে সংযোগ করা যায় আপনার স্মার্টফোন বা অন্যান্য ইণ্টারনেট-সংযোগযোগের উপকরণ, যার মাধ্যমে আপনি কলিং ফিচার এর মতো বিভিন্ন কাজ করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, একটি স্মার্টওয়াচ আপনাকে মেসেজ, কল, ইমেল এবং সামাজিক যোগাযোগ বিজ্ঞপ্তি নোটিফিকেশন আকারে দেখাতে পারে। যা একটি আলাপ ঘড়িতে এসব সাপোর্ট করে না , এছাড়াও স্মার্ট ওয়াচ আপনাকে স্বাস্থ্য এবং ফিটনেস মোনিটরিং করার সুযোগ প্রদান করে থাকে, যেমন হার্ট রেট মনিটরিং , পলস, শক্তি শক্তির খরচ বা ক্যালোরি খরচ এবং পদক্ষেপ গণনা ইত্যাদি সকল সুবিধা দিয়ে থাকে। তাই স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করার জন্য স্মার্ট ওয়াচ খুবই প্রয়োজনীয় একটি ডিভাইস।

স্মার্টওয়াচ আরও কিছু বিশেষ সুবিধা প্রদান করে থাকে, যেমন ক্যালেন্ডার এবং সময় সংগ্রহ করে রাখা, আলার্ম সেট করা, টাইমার চালু করা, একটি বাটন ব্যবহার করে আপনার ফোনের ক্যামেরা চালু করা, অনলাইন পেমেন্ট করা ইত্যাদি। সাথে সাথে স্মার্টওয়াচ উপযুক্ত প্ল্যাটফর্মর মাধ্যমে আরও বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা উপভোগ করতে পারেন। যা আপনাকে আরও বিশেষ কাজ সম্পন্ন করতে সাহায্য করবে।

সংক্ষেপে বলতে গেলে, ২০২৩ সালে মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ সম্পূর্ণভাবে আপনার হাতে প্রযুক্তিগত দিক উন্নত করে এবং বিভিন্ন উপকরণ এবং সুবিধা প্রদান করে, যা আপনাকে সহজে তথ্য অ্যাক্সেস করতে এবং বিভিন্ন টাস্ক সম্পাদন করতে সাহায্য করে। এটি আপনার স্মার্টফোন বা অন্যান্য উপকরণের সম্পূর্ণ সঙ্গী হতে পারে এবং আপনাকে আরও সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা দেয়। তাই স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়ি এর সুবিধাবা প্রয়োজনীয়তা অনেক। আমরা দৈনন্দিন জীবনে এটিকে সঠিকভাবে ব্যবহার করে বিভিন্ন কাজ সম্পাদন করতে পারি।

 

উপসংহার : আপনি যদি ভালো মোবাইল ঘড়ির দাম বা ৩ হাজার টাকার মধ্যে সেরা স্মার্ট ওয়াচ ( Smart Watch Under 3000 taka), ২০২৩ সালে মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ এর সুবিধা কি? তা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে এবং সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ সালের লিস্ট করা হয়েছে। কম দামের স্মার্ট ওয়াচ বা কম বাজেটের সেরা মোবাইল ঘড়ি গুলো এদের ফিচার’স, ব্রান্ড, বাংলাদেশ প্রাইস বা বাংলাদেশ দাম, ব্যাবহারকারীর অভিজ্ঞতা থেকে সেরা ১০ টি স্মার্ট ওয়াচ ২০২৩ সালে লিস্ট আকারে প্রদান করা হয়েছে। আশা করি আজকের পোস্টটি আপনার কাছে যথেষ্ট মূল্যবান হবে। কারন প্রতিটি স্মার্ট ওয়াচ যেমন, শাওমি স্মার্ট ওয়াচ সহ বিভিন্ন ব্রান্ড এর ভালো স্মার্ট ওয়াচ  বা ভালো মোবাইল ঘড়ি গুলো দেয়া হয়েছে।

 

FAQ – Frequently Ask Question About Smart Watch

Smart Watch – স্মার্ট ওয়াচ কেনার আগে আর কি কি জানতে হবে?

বাংলাদেশে কম দামের স্মার্ট ওয়াচ কেনার আগে আপনাকে নিচের বিষয়গুলো জানতে হবে:

1. স্মার্টওয়াচের বিভিন্ন প্রকার আছে, যেমন হেলথ ট্র্যাকিং, জিপিএস সহযুক্ত, সংক্ষিপ্ত সময়ে ব্যাটারি লাইফ ইত্যাদি। আপনি যেকোনো প্রকারের স্মার্টওয়াচ কেনার আগে আপনার পছন্দ অনুযায়ী পণ্যটি সিলেক্ট করতে পারেন।

2. স্মার্টওয়াচের কার্যকারিতা অনুযায়ী আপনার চাহিদা অনুযায়ী নির্বাচন করতে পারেন। কিছু স্মার্টওয়াচ কেবলমাত্র সময় ও তারিখ প্রদর্শন করে, কিছু পরিবহণ করে এবং সর্বশেষ নোটিফিকেশন প্রদর্শন করে, আর কিছু কাউন্টার, স্বাস্থ্য মনিটরিং এবং ফিটনেস ট্র্যাকিং সহযুক্ত স্মার্টওয়াচ হতে পারে।

3. আপনি আপনার স্মার্টওয়াচে কী প্রযুক্তি এবং সংযোগ সমর্থন করছেন তা জানতে পারেন। সমর্থিত প্রযুক্তি সমূহ হতে পারে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস, সেন্সর ইত্যাদি। ভালোভাবে যাচাই করে তারপর কিনবেন।

4. স্মার্টওয়াচ সংযুক্ত হয়ে থাকলে অ্যাপ্লিকেশনগব্যাপারে জানা উচিত যেন সহজেই ব্লুটুথ বা ওয়াইফাই কানেকশন এর মাধ্যমে অ্যাপ্লিকেশনের সাথে কানেক্ট করা যায়।

 

স্মার্ট ওয়াচ এর মাধ্যমে কল করা যায় কি?

হ্যা, ২০২৩ সালের স্মার্ট ওয়াচ এর মাধ্যমে কল করা যায়, তবে খুবই কম মূল্যের মোবাইল ঘড়িগুলোতে শুধু সময় দেখার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে বা অন্যান্য ফিচার্স এভেইলেবল থাকে কিন্তু কিছু কিছু ঘড়িতে কলিং ফিচার থাকেনা। এজন্য অবশ্যই আপনাকে একটি স্মার্ট ওয়াচ কেনার আগে যাচাই করে নিতে হবে যে এটি কলিং ফিচার আছে কিনা।

 

টাচ ঘড়ি বা মোবাইল ঘড়ির দাম কত?

টাচ ঘড়ি বা মোবাইল ঘড়ির দাম বিভিন্ন ব্রান্ড ও মডেল অনুযায়ী হয়ে থাকে, কিছু কিছু স্মার্ট ওয়াচ এর দাম বাজেটের থেকে অনেক বেশি হয়ে থাকে আবার কিছু স্মার্ট ওয়াচে কম বাজেটের মধ্যে ভালো হয়ে থাকে। অবশ্যই আপনি যখন একটি স্মার্ট ওয়াচ কিনবেন তখন তার দাম সম্পর্কে বিস্তারিত আগে জেনে নিবেন এবং আপনার সাথে সেটি মানায় কিনার তা জানবেন।

 

স্মার্ট ওয়াচ এর কয়েকটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড কি কি?

২০২৩ সালের স্মার্ট ওয়াচের বিভিন্ন জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে কিছু নাম নিম্নে দেওয়া হলো:

1. Apple Watch
2. Samsung Galaxy Watch
3. Fitbit
4. Garmin
5. Huawei Watch
6. Fossil
7. TicWatch (মেবু)
8. Amazfit (এক্সিয়ার)
9. Mobvoi
10. Xiaomi Mi Watch

এটি শুধুমাত্র কিছু জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের উদাহরণ। স্মার্ট ওয়াচ বাজারে আরো অনেক ব্র্যান্ড উপস্থিত আছে যা মার্কেটে বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য এবং মূল্যের সাথে আপনার পছন্দসহ বাছাই করতে পারেন, যা মোটামুটি ভালো সুবিধা দিয়ে থাকে।

 

মোবাইল ঘড়ি কতদিন ব্যবহার করা যাবে?

মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ কতদিন ব্যবহার করা যাবে সেটি ডিপেন্ড করে আপনার ব্যবহারের মাধ্যমে, আপনি যদি সঠিক নিয়ম মেনে ব্যবহার করেন তাহলে কয়েক বছর যাবত এগুলো ব্যবহার করতে পারবেন। আর যদি আপনি নরমালি কোন যত্ন না নিয়ে ব্যবহার করেন তাহলে অল্প কিছুদিনের মধ্যে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে ২০২৩ সালে বর্তমানে কম দামের সেরা স্মার্ট ওয়াচ গুলো ভালো সার্ভিস দিয়ে থাকে। আপনি যতই ভালো ব্রান্ডের স্মার্ট ব্যবহার করেন, সঠিক যত্ন না নিয়ে ব্যবহার করলে বেশিদিন ব্যবহার করা যাবে না। তাই অবশ্যই আপনাকে সঠিক যত্ন এবং এর ওয়াটার রেসিস্টেন্স হিসাব করে ব্যবহার করতে হবে।

 

মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্ট ওয়াচ এর বাংলাদেশ প্রাইজ কত?

বাংলাদেশের মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্টওয়াচ এর দাম বিভিন্ন রকমের হয়ে থাকে যা বিভিন্ন ব্রান্ড বা মডেল অনুযায়ী হয়ে থাকে এবং এগুলো নির্দিষ্ট সময় পর পর দাম বাড়া বা কমতে পারে। আপটুডেট প্রাইজ জানতে আপনার পছন্দের নির্দিষ্ট ব্রান্ড শপ বা ব্রান্ডের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

 

মোবাইল ঘড়িতে কি সিম সাপোর্ট করে?

কিছু কিছু মোবাইল ঘড়িতে সিম সাপোর্ট করে, তবে বর্তমানের স্মার্ট ওয়াচ গুলোতে সিম সাপোর্ট করে না, কারন এগুলো মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে ব্লুটুথ কানেক্ট করে কলিং ফিচার সহ মিউজিক ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারবেন।

 

৩ হাজার টাকার মধ্যে কোনটি ভালো স্মার্ট ওয়াচ?

আমার পার্সোনাল মতামত অনুযায়ী ৩ হাজার টাকার মধ্যে ভালো স্মার্ট ওয়াচ হলো Colmi c61 বা Colmi c60। এই দু’টি কম দামে স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে অনেক ফিচারস দিয়ে থাকে এবং এর ডিজাইন খুবই আকর্ষণীয়। যার যেকোন মানুষের হাতে সহজেই ফিট হবে। অথবা আশা করি ৩০০০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে সেরা ১০ টি মোবাইল ঘড়ি বা কম দামে সেরা স্মার্ট ওয়াচ গুলোর যেকোনো একটি হলেও আপনার জন্য পার্ফেক্ট হবে, যা আপনার বাজেট অনুযায়ী যথেষ্ট ফিচার প্রদান করবে।

 

এনালগ হাত ঘড়ি এবং Smart Watch এর পার্থক্য কি?

এনালগ হাতঘড়ি এবং স্মার্ট ওয়াচ এর মধ্যে বেশ কয়েকটি পার্থক্য রয়েছে তার মধ্যে কয়েকটি হলো:

  • এনালগ হাতঘড়ির প্রধান কার্যকারিতা হলো সময় প্রদর্শন করা, অর্থাৎ সময় দেখানো। এটি সাধারণত ঘড়ির আরো কিছু বৈশিষ্ট্য যেমন ঘড়ির আকার ও ডিজাইন সম্পর্কিত হয়। স্মার্ট ওয়াচ তথা একটি ডিজিটাল হাত ঘড়ি সাধারণত অন্যান্য বিশেষ কার্যকারিতা সহ সময় প্রদর্শন করতে পারে। স্মার্ট ওয়াচ অ্যাপস, হার্ট রেট মনিটরিং, ফিটনেস ট্র্যাকিং, পোকেট নোটিফিকেশন, স্মার্টফোন সংযোগ ইত্যাদি সহ বিভিন্ন উপায়ে ব্যবহারকারীদের সুবিধা দেয়।
  • এনালগ হাতঘড়ির কেবল একটি মুখ্য কার্য হলো সময় প্রদর্শন করা। এটি স্মার্টফোন বা অন্য কোনও ডিভাইসে সংযোগ স্থাপন করতে পারে না। স্মার্ট ওয়াচ তথা ডিজিটাল হাত ঘড়ি সাধারণত ব্লুটুথ, ওয়াইফাই বা সেলুলার নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে স্মার্টফোন বা অন্য ডিভাইসের সাথে সংযুক্ত হয়।
  • স্মার্ট ওয়াচ বিশেষ ফিচার সম্পন্ন, যেমন হার্ট রেট মনিটরিং,স্বাস্থ্য ট্র্যাকিং, বারোমিটার, জিপিএস, আক্সেলারোমিটার, ডিজিটাল পেমেন্ট, মিউজিক প্লেয়ার, অ্যাপ ইন্সটলেশন, টেক্সট, মেসেজ, নোটিফিকেশন সহ বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন সম্পন্ন হতে পারে। স্মার্ট ওয়াচ সাধারণত একটি মাল্টিফাংশনাল ডিভাইস হয় যা অতিরিক্ত সুবিধা দেয় ব্যবহারকারীদের জন্য।
  • এনালগ হাতঘড়ির ডিজাইন সাধারণত ক্লাসিক এবং রেট্রো স্টাইলের হয়। এটি বেশ সহজেই সাধারণ ও শালীন ব্যক্তিদের সঙ্গে মিল যায়। স্মার্ট ওয়াচ তথা ডিজিটাল হাত ঘড়ি আরও আধুনিক এবং টেকনোলজিভিত্তিক ডিজাইন সম্পন্ন। এটি আধুনিক ও স্টাইলিশ হয়ে থাকে এবং সাধারণত টাচ স্ক্রিন বা স্ক্রিন ডিসপ্লে সহ থাকে।

 

সংক্ষেপে বলতে গেলে, এনালগ হাতঘড়ি এর তুলনায় স্মার্ট ওয়াচ গুলো ফিচারস এর দিক থেকে অনেকটাই এগিয়ে আছে। তবে কিছু এনালগ হাতঘড়ি আছে আধুনিক কোনো ফিচারস না থাকা সত্ত্বেও এর ডিজাইন খুবই আকর্ষণীয় হয়ে থাকে।

 

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন :

ফেসবুক পেজ : https://facebook.com/rvwbd/
ফেসবুক গ্রুপ : Join Now

Sohel Mahmud

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *